1. admin3@gonomanuserkhobor.com : Admin3 :
  2. smbipplob88@gmail.com : Masud Mukul : Masud Mukul
  3. newsbipplob2014@gmail.com : এস এম বিপ্লব ইসলাম : এস এম বিপ্লব ইসলাম
  4. latashiasievier7627@hidebox.org : latishavonstiegl :
  5. miloblakeley1431@1secmail.org : liammcfarland27 :
  6. eipbtrdplig@badred.pw : malissadealba :
  7. bettecissell@hidebox.org : stevenuzzo70722 :
  8. cssdrtkbtav@ceswyn.link : tamieo9013313440 :
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:

বিদায় অনুষ্ঠানে নাচে গানে মেতে উঠলেন বিদায়ী শিক্ষার্থীরা, বইছে নিন্দার ঝড়

জাহিদ হাসান জীবন , সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২১
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে বামনডাঙ্গা শিশু নিকেতন এন্ড মডেল হাই স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানের শেষে  নোংরামিতে মেতে উঠেন বিদায়ী এসএসসি পরীক্ষার্থীরা। জানা যায়, বুধবার (১০ নভেম্বর) দুপুরবেলা উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের বামনডাঙ্গা শিশু নিকেতন এন্ড মডেল হাইস্কুলের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের এসএসসি ৮ম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে তাঁদের কল্যাণ কামনায় এক বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়ার পূর্বে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মো. মুনছুর আলীর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় এতে প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি, আমন্ত্রিত অতিথি সহ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রধান আলোচনা রাখেন।
আলোচনা শেষে শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ মঙ্গল কামনায় দোয়া মাহফিলে অংশ নেন উপস্থিত সকলেই। এরপরেই বিদায়ী এসএসসি শিক্ষার্থীরা মেতে উঠেন নোংরামিতে। যার ফলে বইছে নিন্দার ঝড়। বিভিন্ন অসামাজিক গানের তালে আর নাচে বিদায় অনুষ্ঠানের নামে র‍্যাগ-ডে পালনে দিশেহারা ছিলেন তারা। শুধু কি তাই? না! ছেলে মেয়ে একজন আরেকজনের হাত ধরে গানের তালে নাচে মাতাল হয়েছিলেন তারা। এছাড়াও উপস্থিত সকল শিক্ষার্থীর গায়ে ছিল সাদা রঙের টি – শার্ট তাতে কলম (শাইন পেন) দিয়ে লিখা ছিল অশ্লীল সব ধরনের ভাষা। এ যদি হয় এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান তাহলে এরা কত ভালো হবে। এতে বুঝাতে বাকি নেই তাদের  ভবিষ্যৎ বাহ্ কি।
বিদায় অনুষ্ঠানের এমন নোংরামি নিয়ে এক ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখলে তার পোস্টে হাস্যকর কমেন্ট করেন নোংরামিতে  মেতে উঠা কয়েক শিক্ষার্থী। এমনকি তাকে পোস্ট ডিলিট করার জন্য দেওয়া হয় টাকার প্রলোভন। এখানেই কি থেমে থাকা ঠিক তা নয় বিদায়ী শিক্ষার্থী অশ্লীল ভাষায় মেসেঞ্জারে গালিগালাজ করেন ফেসবুক পোস্টকারীকে।এদিকে একই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন এক শিক্ষার্থী ফেসবুক পোস্টে মন্তব্য করেন, গভীর ঘৃণা প্রকাশ করছি। যে স্কুলে আমি শৈশব কাটিয়েছি সে স্কুলের বর্তমান এমন বাজে পরিস্থিতি দেখার জন্য। এই দায় অবশ্যই স্কুলের শিক্ষক, পরিচালনা কমিটি কে নিতে হবে। বেহায়াপনা কখনো সুশিক্ষা হতে পারে না। দিন যাচ্ছে মানুষ উন্নত হচ্ছে, কিন্তু সভ্যতা বিলুপ্তির পথে।
এসএসসি পরিক্ষার্থীদের এমন বিদায় অনুষ্ঠানের দৃশ্য দেখে সুশীল সমাজ হতবাক।তারা বলছেন প্রতিটি মা-বাবা তাদের সন্তানদের প্রকৃত সুশিক্ষা ও ভালো মানুষ হয়ে গড়ে উঠার জন্য বিদ্যালয়ে পাঠান। আর সেই বিদ্যালয়ের যদি এমন হয় তাহলে অভিভাবকরা যাবেন কোথায়। এ বিষয়টি নিয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষানুরাগী বলেন, আমাদের সময় এসএসসি পরিক্ষা আসলে মা-বাবা, মুরুব্বিসহ অনেকের কাছে দোয়া চাইতাম যেন পরিক্ষা ভালো হয়। আমরাও বিদায় অনুষ্ঠানে শিক্ষক-শিক্ষিকার কাছে প্রবেশ পত্র নেওয়ার আগে নিজেদের ভুলত্রুটি সম্পর্কে ক্ষমা চেয়ে নিতাম তাদের কাছে দোয়া চাইতাম নয়ন ভরা জলে। আর এখন শিক্ষা ব্যবস্থার মান অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনেকটা ধ্বংসের মুখে।বর্তমানে বিদায় অনুষ্টানের নামে র‍্যাগ ডে পালন করেন বিদায়ী শিক্ষার্থীরা।
এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক আবুল কাশেমের সাথে মুঠোফোন যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ দেখায় পরে তার সাথে ফেসবুক মেসেঞ্জারে কথা হলে তিনি বলেন, আরে পাগল আমরা প্রোগ্রাম টা শেষ করলাম ১ টায়। আর ওরা গান বাজনা করলো ৪ টায়। কি করবো আমরা। আমরা তখন মাঠে ছিলাম না। এটার জন্য আমার খুব খারাপ লেগেছে এবং রাগারাগি করে ওদেরকে বাড়িতে যেতে বলছিলাম। ওরা বলছিল স্যার আজ আমাদের শেষ দিন। আর একটা বিষয় বলি। কো এডুকেশনাল প্রতিষ্ঠানে এরকম টিনএজরা ভুল করে থাকে আবার কলেজে উঠলে এ রোগ আর থাকে না। ভালো ফ্যামিলির অনেক মেয়েদের এরকম ঘটনা আমাদের দেখতে হয়েছে আবার আমরা সামাল দিয়ে ছাত্র ছাত্রী দের ঠিক করেছি। কারন বয়ঃসন্ধি কালের বিবর্তনে এরকম থাকবে তবে রোধ করার দায়িত্ব প্রতিষ্ঠানের।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গণ মানুষের খবর

Theme Customized BY LatestNews