1. admin3@gonomanuserkhobor.com : Admin3 :
  2. smbipplob88@gmail.com : Masud Mukul : Masud Mukul
  3. newsbipplob2014@gmail.com : এস এম বিপ্লব ইসলাম : এস এম বিপ্লব ইসলাম
বিশ্ব আ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ পালন 
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০১:০৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:

বিশ্ব আ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ পালন 

মোঃ আবু হাসানুল হুদা রাশেদ
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৮ বার পঠিত
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও পালিত হচ্ছে বিশ্ব অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ ২০২২। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রতি বছরের মতো এ বছর ১৮ থেকে ২৪ নভেম্বর অ্যান্টিবায়োটিক সচেতনতা সপ্তাহ পালন করছে। অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স (অকার্যকারিতা) সহনীয় মাত্রায় আনার জন্য চিকিৎসকসহ সব পর্যায়ের স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারীদের সচেতনতা তৈরিতে বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।
সপ্তাহ উপলক্ষ্যে সোমবার (২১ নভেম্বর) ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে গাইবান্ধা জেলার আয়োজনে সাদুল্লাপুর উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কে র‍্যলিটি প্রদক্ষিণ করে উপজেলা স্বাস্থ্য  কমপ্লেক্সের হল রুমে ‘শীর্ষক আলোচনা’ সভায় বক্তব্য রাখেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর গাইবান্ধা সহকারি পরিচালক শিকদার কামরুল ইসলাম, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ অনিক সরকার, বিডিসিসি ও ফারিয়ার নেতৃবৃন্দ।
ডাক্তার অনিক বলেন, চিকিৎসক ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করা ঠিক নয়। এটির মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার ক্ষতিকর। অ্যান্টিবায়োটিক ঠান্ডা বা ভাইরাসজনিত রোগে কোনো কাজ করে না। যদি ভাইরাসজনিত রোগে অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগ করা হয়, তবে বিপজ্জনক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এ ধরনের চিকিৎসা চলতে থাকলে অর্থাৎ অ্যান্টিবায়োটিকের ব্যবহার যথার্থ না হলে এমন একটা সময় আসবে যখন ব্যাকটেরিয়াকে মারা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।
জনস্বাস্থ্যের মতে দেশে রোগীরা ওষুধের দোকান থেকে মুখস্থ অ্যান্টিবায়োটিক কিনে নিয়মবহির্ভূতভাবে সেবন করে থাকেন। ফলে ওষুধটির যথার্থ প্রয়োগ না হওয়ায় জীবাণুগুলো ধীরে ধীরে রেজিসট্যান্স হয়ে পড়ছে। শিকদার কামরুল ইসলাম বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশে অ্যান্টিবায়োটিক বা অন্য কোনো ওষুধ কিনতে হলে চিকিৎসককের পরামর্শপত্র দেখাতে হয়।
চিকিৎসক ছাড়া অন্য কারও ওষুধ দেওয়ার কোনো এখতিয়ার নেই। কিন্তু দেশে অ্যান্টিবায়োটিকের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া বা অন্য ওষুধের সঙ্গে এর কোনো ইন্টারঅ্যাকশন আছে কি না তা সাধারণ জনগণের অজানা। অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করতে গিয়ে অনেকে অন্যান্য সমস্যায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তাই সচেতনতা খুবই জরুরি। ওষুধটির পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া এবং বিস্তার এড়াতে সাধারণ জনগণ, স্বাস্থ্যকর্মী এবং নীতিনির্ধারকদের মধ্যে সেবা অনুশীলনকে উৎসাহিত করা দরকার।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | গণ মানুষের খবর

Theme Customized BY LatestNews